বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ০১:০১ অপরাহ্ন

মতিঝিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বরখাস্ত

মতিঝিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বরখাস্ত

মতিঝিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বরখাস্ত

শিক্ষার্থীদের ভর্তি বাবদ বাধ্যতামূলকভাবে বেআইনি অর্থ গ্রহণ ও হয়রানির অভিযোগে মতিঝিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অভিযান চালিয়েছে দুদক।

দুদক হটলাইনে (১০৬) ভুক্তভোগী অভিভাবকরা সোমবার অভিযোগ জানালে মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী তাৎক্ষণিক অভিযান চালানোর নির্দেশ দেন।

দুদকের সহকারী পরিচালক নার্গিস সুলতানা ও উপসহকারী পরিচালক মো. সবুজ হাসানের সমন্বিত টিম এ অভিযান চালায়।

দুদকের অভিযান দেখা যায়, অভিভাবকদের কাছ থেকে মতিঝিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা নূরজাহান হামিদা বাধ্যতামূলকভাবে বিনা রশিদে ১ হাজার থেকে দেড় হাজার টাকা করে নিচ্ছেন।

এমনকি হতদরিদ্রদের সন্তানদেরও বিনামূল্যে ভর্তি করানো হয়নি। বরং তাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হয়েছে। ২০১৯ সালে ভর্তি বাবদ ওই প্রধান শিক্ষিকা ৫ লাখ ৭৭ হাজার টাকা নিয়েছেন বলে প্রমাণ পায় দুদক টিম।

টিমের সদস্যরা জানতে পারেন এসব টাকার কোনো আয়-ব্যয়ের হিসাব রাখা হয়নি। প্রধান শিক্ষিকা নূরজাহান হামিদা দুদক টিমের কাছে অবৈধ অর্থ আদায়ের ঘটনা স্বীকার করেন।

এ ঘটনা উদ্ঘাটন হওয়ার পরপরই দুদকের মহাপরিচালক (প্রশাসন) বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে অবহিত করেন।

তিনি তাৎক্ষণিকভাবে ওই প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান। এরপরই প্রধান শিক্ষিকা নূরজাহান হামিদাকে বরখাস্তের আদেশ জারি করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এ অভিযান প্রসঙ্গে দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী বলেন, দুদক শিক্ষা সেক্টরে দুর্নীতির শেকড় উৎপাটনে কঠোর অভিযান চালাবে।

তবে এসব দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদেরও প্রতিরোধমূলক মানসিকতা থাকতে হবে। শিগগিরই বেআইনি আদায় অর্থ অভিভাবকদের কাছে ফেরত দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 BangaliTimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com