বৃহস্পতিবার, ১৮ Jul ২০১৯, ০১:৫৩ অপরাহ্ন

পাগলা মসজিদে কোটি টাকা জমা পরে কেন?

পাগলা মসজিদে কোটি টাকা জমা পরে কেন?

পাগলা মসজিদে কোটি টাকা জমা পরে কেন?

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদ। এখানে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা দান করেন সাধারণ মানুষ। শুধু টাকা-পয়সা নয়, সোনাদানার পাশাপাশি দান করা হয় গরু-ছাগল ও হাঁস-মুরগীসহ বিভিন্ন পণ্য সামগ্রী। বছরে দান করা টাকার পরিমাণ ছাড়িয়ে যায় কোটি টাকা।

তবে কেন এতো দান করেন এই মসজিদে? এমন প্রশ্নে স্থানীয়রা বলছেন, এই মসজিদে মানুষ দু’হাত খুলে দান করেন। শুধু মুসলমান নয়, অন্যান্য ধর্মের লোকজনকেও এ মসজিদে দান করতে দেখা যায়। এটি দেশের অন্যতম বিত্তশালী মসজিদ।

মানুষের বিশ্বাস, কোনও আশা নিয়ে একনিষ্ঠ মনে এ মসজিদে দান করলে আল্লাহ তা কবুল করেন। রোগ-শোক ছাড়াও বিভিন্ন উপলক্ষে মানুষজন এ মসজিদে মানত করে দান করেন। যুগ যুগ ধরে এ বিশ্বাস থেকেই মানুষ মসজিদটিতে দান করছেন।

এছাড়া এ মসজিদের জমা পড়া দানের টাকা জনকল্যাণমূলক কাজে ব্যবহার করা হয় বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

কিশোরগঞ্জ শহরের হারুয়া এলাকার নরসুন্দা নদীর তীরে ২০০ বছর আগে নির্মাণ করা হয় পাগলা মসজিদ। দৃষ্টিনন্দন মসজিদের চত্বরজুড়ে সরাদিনই থাকে সাধারণ নারী-পুরুষের ভিড়। মনোবাসনা পূর্ণ হওয়ার বিশ্বাসে মসজিদে দান করছেন টাকা-পয়সা ও স্বর্ণালংকার থেকে শুরু করে বিভিন্ন পণ্য সামগ্রী।

প্রতি তিন মাসে একবার খোলা হয় মসজিদের পাঁচটি দান বাক্স। প্রতিবারই দানের পরিমাণ ছাড়িয়ে যায় কোটি টাকা। জমাকৃত টাকা রাখা হয় ব্যাংকে।

কিশোরগঞ্জ পাগলা মসজিদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. শওকত উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, প্রতি শুক্রবার মসজিদে দানের পরিমাণ বেশ কয়েক হাজার টাকা হয়।

পাগলা মসজিদের ব্যয় নির্বাহের পর জেলার বিভিন্ন মসজিদের উন্নয়ন, মাদ্রাসার গরীব শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা এবং জনকল্যাণমূলক কাজে ব্যয় করা হয় দানের অর্থ।

কিশোরগঞ্জ পাগলা মসজিদের টাকা গণনা কমিটি এবং অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও আহ্বায়ক মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘দানকৃত টাকা পাগলা মসজিদসহ বিভিন্ন মসজিদ এবং মাদ্রাসার উন্নয়ন এবং গরীব শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার ব্যয় মেটাতে খরচ করা হয়।’

গত ১৯ জানুয়ারি পাগলা মসজিদের দান বাক্স থেকে পাওয়া গেছে এক কোটি ১৩ লাখ ৩৩ হাজার টাকা। গত বছর মসজিদটির দান বাক্স থেকে আয় হয় ৫ কোটি ৩৫ লাখ ৭৬ হাজার টাকা। মসজিদটি পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 BangaliTimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com