বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ১০:১৮ পূর্বাহ্ন

রংপুরে এরশাদকে সমাহিত না করলে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি

রংপুরে এরশাদকে সমাহিত না করলে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি

রংপুরে এরশাদকে সমাহিত না করলে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য, মহানগর সভাপতি ও রংপুর সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা সাবেক প্রেসিডেন্ট হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সমাধি কোনো সংরক্ষিত এলাকায় হতে দেব না। তার ওছিয়কৃত স্থান রংপুরের পল্লী নিবাসেই এরশাদকে সমাহিত করতে হবে।

সোমবার (১৫ জুলাই) রংপুর মহানগরীর সেন্ট্রাল রোডে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগীয় জাতীয় পার্টির যৌথ সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ঘোষণা দেন।

সংবাদ সম্মেলনে মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, মঙ্গলবার এরশাদের লাশ রংপুরে আসার পর সেটি যদি ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার অপচেষ্টা করা হয়, তবে রংপুরের লাখ লাখ মানুষের লাশের ওপর দিয়ে নিয়ে যেতে হবে। উন্নয়ন অগ্রগতি ও পরমত সহিষ্ণু রাজনীতির চেতনার বাতিঘর এরশাদকে মৃত্যুর আগেও শৃংখলিতকরে রাখা হয়েছিল। সে কারণে মৃত্যুর সময়েও তার নামে ঝুলেছে দুটি মিথ্যা মামলা। তার মৃত্যুর পরেও তাকে সাধারণ মানুষ থেকে বিচ্ছিন্ন করে জাতীয় পার্টিকে ধংসের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে তাকে বনানী কবরস্থানে দাফন করার অপচেষ্টা চলছে। রংপুর তথা উত্তরাঞ্চলের মানুষ এই ষড়যন্ত্রকে কোনভাবেই মানবো না।

মোস্তফা বলেন, তিনি পল্লী নিবাস থেকেই রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেছিলেন। একটি নতুন বাড়িও নির্মাণ করছিলেন তিনি। কিন্তু সেই বাড়িতে উঠতে পারেননি। পল্লী নিবাসে সমাহিত করে আমরা একটি স্মৃতি কমপ্লেক্স তৈরি করবো। সেখানে এরশাদের জীবন দর্শন নিয়ে একটি মিউজিয়াম করা হবে। মসজিদ মাদরাসা কমপ্লেক্স থাকবে। তার সমাধিকে ঘিরে তার জীবন ও কর্মের চেতনার বাতি আমরা দেশে-বিদেশে জ্বালিয়ে দিতে চাই। তার অবর্তমানে তার ভাই জিএম কাদেরের নির্দেশনার আলোকে আমরা জাতীয় পার্টিকে এগিয়ে নিতে চাই।

সংবাদ সম্মেলনের আগে রংপুর সেন্ট্রাল রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের একটি যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রংপুর মহানগর সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার সভাপতিত্বে ও মহানগর সভাপতি এসএম ইয়াসিরের সঞ্চালনায় এ সময় বক্তব্য রাখেন প্রেসিডিয়াম সদস্য গাইবান্ধা জেলা সভাপতি আব্দুর রশিদ সরকার, দিনাজপুর জেলা সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান জুলফিকার আলী ও সাধারণ সম্পাদ শরীফ আহমেদ, ঠাকুরগাঁও জেলা সভাপতি আলী রাজু স্বপন, বগুড়া জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তফা কামাল ফারুক, লালমনিরহাট জেলা সদস্য সচিব সেকন্দোর আলী, নীলফামারী জেলা সদস্য সচিব শাহজাহান আলী, পঞ্চগড় জেলা সভাপতি আবু সালেহ, রংপুর জেলা যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক, শাফিউল ইসলাম শাফী, সাবেক এমপি শাহানা বেগম, পীরগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান প্রমুখ। বৈঠকে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের ১৬ জেলা ও দুই মহানগরীর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 BangaliTimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com