সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:২৬ অপরাহ্ন

টেকনাফে রোহিঙ্গাকন্যাকে ১ কেজি স্বর্ণ ও ৪৫ লাখ টাকা উপহার!

টেকনাফে রোহিঙ্গাকন্যাকে ১ কেজি স্বর্ণ ও ৪৫ লাখ টাকা উপহার!

টেকনাফে রোহিঙ্গাকন্যাকে ১ কেজি স্বর্ণ ও ৪৫ লাখ টাকা উপহার!

কক্সবাজারের টেকনাফে রোহিঙ্গা নেতার কিশোরী মেয়ের রাজকীয় কান ফোঁড়ানো অনুষ্ঠান হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। অনুষ্ঠানে ১ কেজি স্বর্ণালংকার ও নগদ ৪৫ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন উপহার দেয়া হয়েছে ওই রোহিঙ্গাকন্যাকে। খবর ইউএনবির।

অতিথিদের দেয়া এমন উপহারে ধীরে ধীরে আয়োজকের বাড়ি স্বর্ণালংকারের স্তূপে পরিণত হয়। একইভাবে টাকায় বস্তা ভর্তি হয়ে যায়।

সম্প্রতি এমন ঘটনাই ঘটেছে টেকনাফের রোহিঙ্গা নেতা নূর মোহাম্মদের কিশোরী মেয়ের কান ফোঁড়ানো অনুষ্ঠানে।

তবে ওই রোহিঙ্গা নেতা সম্পর্কে টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান, নূর মোহাম্মদের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা, ডাকাতি, অপহরণসহ অনেক মামলা রয়েছে। তিনি মোস্ট ওয়ানটেড আসামি।

ওসি জানান, নূর মোহাম্মদের মেয়ের কান ফোঁড়ানোর অনুষ্ঠানে এমন উপহারসামগ্রীর বিষয়টি এলাকাবাসীর কাছ থেকে জেনেছি। এ ঘটনার পর থেকে রোহিঙ্গা নূর মোহাম্মদকে ধরার জন্য কয়েক দফা অভিযান চালানো হয়েছে। কিন্তু তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী জানান, গত ২২ আগস্ট রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের দিনই রোহিঙ্গা নূর মোহাম্মদ তার মেয়ের কান ফোঁড়ানোর অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন। এতে গরু-ছাগল জবাই করে আয়োজন করা হয় বিশাল ভোজ অনুষ্ঠান। আমন্ত্রিতদের অধিকাংশই রোহিঙ্গা ডাকাত, সন্ত্রাসী ও রোহিঙ্গা ইয়াবা কারবারীর দল।

তিনি বলেন, ১৯৯২ সালে মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা নূর মোহাম্মদ হ্নীলা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের জাদিমুরা এলাকায় এসে প্রথমে বাসা ভাড়া নিয়ে ছিলেন। ধীরে ধীরে সেখানেই জমি কিনে বাড়ির মালিক হন।

রোহিঙ্গা নেতার মেয়ের রাজকীয় অনুষ্ঠান সম্পর্কে কক্সবাজারের সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি বলেন, এরকম রাজকীয় অনুষ্ঠান আয়োজন করা রোহিঙ্গাদের জন্য কোনো ব্যাপার না। এখানে সবাই এখন ধনাঢ্য। অনেক রোহিঙ্গাই এবার ঈদুল আজহায় আড়াই লাখ টাকার বেশি দামের গরু কোরবানিও দিয়েছে। এ ছাড়া কান ফোঁড়ানোর অনুষ্ঠানে গান গাওয়ার জন্য স্বনামধন্য শিল্পীদেরও মোটা অংকের টাকা দিয়ে আনা হয় বলেও জানান তিনি।

ওসি প্রদীপ কুমার জানান, রোহিঙ্গা নূর মোহাম্মদের বাংলাদেশে ৪টি বাড়ি রয়েছে। তার মধ্যে একটি পাকা ভবন, একটি দু’তলা, একটি টিনের ঘর এবং অপরটি বাগান বাড়ি। রোহিঙ্গারাই তাদের ‘ওস্তাদের’ কন্যার কান ফোঁড়ানোর অনুষ্ঠানে এক কেজির মতো স্বর্ণালংকার এবং নগদ টাকাসহ রীতিমতো প্রতিযোগিতা করে উপহার সামগ্রী দিয়েছে। যে কারণেই এরকম অস্বাভাবিক পরিমাণে উপহার উঠেছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 BangaliTimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com