রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৭:১০ অপরাহ্ন

ভারতের পানির ঢলে চাঁপাইয়ে ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি

ভারতের পানির ঢলে চাঁপাইয়ে ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি

ভারতের পানির ঢলে চাঁপাইয়ে ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি

ভারত থেকে ধেয়ে আসা পানির ঢলে চাঁপাইনবাবগঞ্জে পদ্মা ও মহানন্দা নদীতে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। তবে উভয় নদীর পানি এখনও বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সদর ও শিবগঞ্জ উপজেলার নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে কয়েক হাজার বিভিন্ন ফসলের ক্ষেত।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানা গেছে, পদ্মা ও মহানন্দা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় জেলার সদর ও শিবগঞ্জ উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চলের প্রায় ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড চাঁপাইনবাবগঞ্জ অফিস সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মা নদীতে ১১ সেন্টিমিটার ও মহানন্দা নদীতে ১২ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। বুধবার সকালে পদ্মা নদীর পানি বিপদসীমার ৩০ সেন্টিমিটার ও মহানন্দার পানি ২২ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে তলিয়ে গেছে ৮ হাজার হেক্টর জমির ফসল।টানা বর্ষণ ও ফারাক্কার খুলে দেয়া বাঁধের ওপার থেকে আসা পানির প্রভাবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের নিমাঞ্চল প্লাবিত হতে শুরু করেছে।

এরই মধ্যে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কয়েক হাজার পরিবার। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে নদী তীরবর্তী এলাকা ও চরাঞ্চলের প্রায় সাড়ে আট হাজার হেক্টর জমির ফসল। এদিকে পদ্মায় পানি বৃদ্ধির কারণে সদর উপজেলার আলাতুলি, নারায়ণপুর, চর অনুপনগর, শাহজাহানপুর ও চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চলে পানি প্রবেশ করতে শুরু করেছে। পাঁচটি ইউনিয়নের প্রায় তিন হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

চরবাগডাঙ্গা ইউপির ৯ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য কামরুজ্জামান টুটুল জানান, গোঠাপাড়া, বাগানপাড়া, চাকপাড়া, গিধনিপাড়া, মালবাগডাঙ্গা গ্রামের নিম্নাঞ্চল প্লবিত হয়ে প্রায় ৫০০ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। চরবাগডাঙ্গা বিওপি এলাকার গিধনিপাড়ায় নদীভাঙন দেখা দিয়েছে।

শাহজাহানপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুস সালাম জানান, হাকিমপুর, সেকালিপুর রাবনপাড়া, দুর্লভপুর ও নরেন্দ্রপুরের কিছু অংশ প্লাবিত হয়েছে। এতে এ সব এলাকার কয়েকশ’ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি বৃষ্টির কারণে দুর্ভোগের মাত্রাও বাড়তে শুরু করেছে।

চর অনুপনগর ইউপি চেয়ারম্যান সাদেকুল ইসলাম জানান, নতুনপাড়া, বিশ্বাসপাড়া, লম্বাপাড়া, মোন্নাপাড়া, চর অনুপনগর বাগানপাড়া, কলাবাগান ও চরকাশেমপুর ক্যানেলপাড়ার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে প্রায় ৪০০ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মৌদুদ আলম জানান, ‘আকস্মিক বন্যার পানি ও গত কয়েক দিনের ভারি বর্ষণে এখন পর্যন্ত সদর উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের প্রায় তিন হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।’

চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মঞ্জুরুল হুদা বলেন, টানা বৃষ্টি ও ফারাক্কার গেট খুলে দেয়ায় জেলার পদ্মা ও মহানন্দা নদীর অববাহিকায় থাকা নিম্নাঞ্চলগুলো প্লাবিত হতে হচ্ছে। এতে জেলার প্রায় ৭ হাজার ৮শ’ হেক্টর জমির মাসকলাই তলিয়ে গেছে। এ ছাড়া ৬০০ হেক্টর জমির শাক-সবজি ও ৯৫ হেক্টর জমির হলুদ নষ্ট হয়ে গেছে।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 BangaliTimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com