মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:০৮ অপরাহ্ন

রাজনৈতিক ঝামেলায় সেনাবাহিনীর জড়ানো উচিত না: মাওলানা ফজলুর

রাজনৈতিক ঝামেলায় সেনাবাহিনীর জড়ানো উচিত না: মাওলানা ফজলুর

রাজনৈতিক ঝামেলায় সেনাবাহিনীর জড়ানো উচিত না: মাওলানা ফজলুর

রাজনৈতিক কার্যক্রমে জড়িয়ে সেনাবাহিনীর উচিত না নিজেদের ঝামেলার মধ্যে ফেলে দেয়া বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের বিরোধী দল জমিয়তে উলামা-ই-ইসলামের প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমান।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পদত্যাগের প্রসঙ্গ ছাড়া কোনো ধরনের আলোচনার দরকার নেই।

বৃহস্পতিবার অবস্থান কর্মসূচিতে বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তখন আর কোনো আলোচনার দরকার পড়বে না। আমাদের কাছেও আসতে হবে না। যখন আসবেন, তখন অবশ্যই স্থায়ীভাবে ক্ষমতা ছাড়ার উদ্দেশ্য নিয়েই আসবেন।

পাকিস্তানের ইংরেজি দৈনিক ডন অনলাইনের খবরে এমন তথ্য জানা গেছে।

এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ বলেন, আপনার বের হওয়ার পথ বন্ধ হয়ে গেছে। এখন আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে আপনি কী ক্ষমতায় থেকে যেতে চান নাকি বের হয়ে এসে জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দেবেন।

বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের আবেগ ও সরকারবিরোধী চলমান কর্মসূচিকে অবমূল্যায়ন করার কোনো ইচ্ছা বিরোধী দলীয় নেতাদের নেই বলে জানিয়েছেন জমিয়ত প্রধান।

ডননিউজটিভির টকশোতে অংশ নিয়ে তিনি বলেন, আজাদি মার্চের এই বিক্ষোভে সব ধরনের লোক অংশ গ্রহণ করেছেন। সব রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিত্ব এখানে রয়েছে। তারা যখন এই বিক্ষোভ অব্যাহত রাখতে চাচ্ছেন, তখন এটা কখন শেষ হবে, তা বলা অসম্ভব।

বারবার সরকারের সঙ্গে জড়িয়ে যে সমস্যা তৈরি করা হয়েছে, সেনাবাহিনীকে অবশ্যই তা থেকে মুক্ত থাকতে হবে জানিয়ে মাওলানা ফজলুর রহমান বলেন, সমস্যা তখনই তৈরি হয়, যখন নিরাপত্তার কথা বলে নির্বাচনের সময় সেনাবাহিনীকে মাঠে নামানো হয়। তখন তারা প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ঢুকে পড়েন।

সাংবাদিক মেহের বুখারিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, তখন সেনাসদস্যদের ছত্রছায়ায় সাধারণ মানুষকে ভোট দিতে হয়। জনগণও সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে কথা বলেন। কাজেই সেনাবাহিনীকে এই সংকট থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 BangaliTimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com