শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:২৩ পূর্বাহ্ন

সুনামগঞ্জে লবণ নিয়ে লংকাকাণ্ড, ২ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

সুনামগঞ্জে লবণ নিয়ে লংকাকাণ্ড, ২ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

সুনামগঞ্জে লবণ নিয়ে লংকাকাণ্ড, ২ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

পেঁয়াজের পর এবার লবণ নিয়ে লংকাকাণ্ড চলছে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলায়।এ ঘটনায় দুই ব্যবসায়ীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একটি অসাধু চক্র গুজব ছড়িয়ে লবণের দাম বাড়িয়ে ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করছেন।

সাধারণ মানুষ গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে বেশি দামে লবণ কিনে প্রতারিত হচ্ছেন।

সোমবার সন্ধ্যায় ছাতক বাজারে বেশি দামে লবণ বিক্রি করার দায়ে ওই দুই ব্যবসায়ীকে জরিমানা করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ছাতক উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সোমবার সন্ধ্যা থেকে লবণের দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন একশ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী।

বাজারে প্রতি কেজি লবণের খুচরা মূল্য ৩০-৩৫ টাকা। কিন্তু ‘লবণ সংকটের’ গুজব ছড়িয়ে প্রতি কেজি ৪০-১০০ টাকায় বিক্রি করার খবর পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, সুনামগঞ্জের ছাতক, গোবিন্দগঞ্জ, জাউয়াবাজার, দোলারবাজার, মইনপুর, সিরাজগঞ্জ, আলীগঞ্জ, কালারুকা, গোবিন্দগঞ্জ, ট্রাফিক পয়েন্ট, পুরনোবাজার, বুড়াইরগাঁও, ধারন, পীরপুর, মানিকগঞ্জসহ বিভিন্ন হাটবাজারে কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী লবণের সংকটের গুজব ছড়িয়ে দিয়েছেন। গুজব ছড়িয়ে তারা প্রতি কেজি লবণ অতিরিক্ত দামে বিক্রি করেছেন।

ছাতক থানার ওসি গোলাম মোস্তফা জানান, গুজব সৃষ্টিকারীদের ধরতে আমরা মাঠে নেমেছি। কোনো ব্যবসায়ী গুজবে কান দিয়ে কারসাজি করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ছাতক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম কবির জানান, লবণের দামবৃদ্ধির বিষয়টি গুজব। গুজব ছড়িয়ে কেউ বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করলে আমরা কঠোর হস্তে দমন করব।

লবণের কোনো মূল্যবৃদ্ধি হয়নি, এটি সম্পূর্ণ গুজব। ছাতক উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাপস শীলের নেতৃত্বে তার দল বাজারে বিভিন্ন দোকানে অভিযান শুরু করে বেশি দামে লবণ বিক্রি করার দায়ে দুই ব্যবসায়ীকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার রাতে ভ্রাম্যমাণ আদালত ছাতকবাজারে বেশি দামে লবণ বিক্রি হচ্ছে, এ ঘটনার খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে আলী ট্রেডার্সকে ১০ হাজার ও নিতাই স্টোরকে ১০ হাজার টাকা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯-এর ৪০ ধারায় এ অর্থদণ্ড প্রদান করেন।

লবণ বেশি দামে বিক্রির অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালত অর্থদণ্ড প্রদানের ঘটনায় উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজারে এ খবর ছড়িয়ে পড়ে।

অবশেষে লুটপাটকারী অসাধু ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে বাড়িতে চলে যান। তবে বাজারে লবণের ঘাটতি নেই। ক্রেতাদের গুজবে কান দিয়ে বেশি দামে লবণ ক্রয় না করার আহ্বান জানায় প্রশাসন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 BangaliTimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com