শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৪৮ পূর্বাহ্ন

ফের পেঁয়াজের কেজি ২৬০

ফের পেঁয়াজের কেজি ২৬০

ফের পেঁয়াজের কেজি ২৬০

আমদানি শুল্ক মওকুফ, ঋণের সুদ কমানো, জরুরি ভিত্তিতে বিমানে আমদানি করাসহ বেশ কয়েকটি উদ্যোগ নিলেও পেঁয়াজের দামের নাগাল টানতে পারেনি সরকার। এক থেকে দেড় মাসের ব্যবধানে ৩০ টাকা কেজি পেঁয়াজের দাম বেড়ে ২৫০ থেকে ২৬০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। মাঝে ৩ থেকে ৪ দিনের জন্য ৪০ থেকে ৫০ টাকা কমে এখন আবারো বিক্রি হচ্ছে ২৫০ টাকায়। বাজারে পর্যাপ্ত পেঁয়াজের আমদানি থাকলেও প্রশাসনের নজরদারির অভাবে ব্যবসায়ীরা দাম বাড়িয়েছে বলে অভিযোগ ভোক্তাদের। এদিকে ব্যবসায়ীদের দাবি, পেঁয়াজের আমদানি কম হওয়ায় পেঁয়াজের দাম বেড়েছে।

সোমবার (২৫ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতিটি বাজারেই শুধু দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। দেশের বাইরে থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ এবং দেশীয় নতুন মুড়িকাটা পেঁয়াজ বাজারে এখনো ওঠেনি। এতে দাম বেশি হলেও ক্রেতা-বিক্রেতাদের দেশি পেঁয়াজের ওপরই নির্ভর করতে হচ্ছে। আর এই সুযোগে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে ব্যবসায়ীরা।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, দেশে চলমান পেঁয়াজের সঙ্কট ও উচ্চমূল্য রোধে তুরষ্ক থেকে আকাশ ও সমুদ্রপথে পেঁয়াজ আমদানি শুরু করা হচ্ছে।প্রাথমিক পর্যায়ে ২ হাজার ৫২০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানির সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমদানি করা পেঁয়াজের প্রথম চালান ইতোমধ্যে তার্কিশ এয়ারলাইন্সে গত শুক্রবার (২২ নভেম্বর) সকালে ঢাকায় পৌঁছায়। পরে তা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। দ্বিতীয় চালান আকাশ পথে দেশে পৌঁছাবে সোমবার (২৫ নভেম্বর)।

এছাড়া তুরষ্ক থেকে সমুদ্র পথে ২ হাজার ৫০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজের একটি চালান ইতোমধ্যে সিঙ্গাপুর হয়ে দেশের পথে রয়েছে। আশা করা হচ্ছে, অতি অল্প সময়ের মধ্যে এগুলো চট্রগ্রাম সমুদ্র বন্দরে পৌঁছাবে বলে জানায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 BangaliTimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com