রবিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২০, ০৩:৫৫ অপরাহ্ন

সেন্টমার্টিন /নারিকেল জিঞ্জিরা 🌴🌴

সেন্টমার্টিন /নারিকেল জিঞ্জিরা 🌴🌴

সেন্টমার্টিন /নারিকেল জিঞ্জিরা 🌴🌴

এ যেন স্বপ্নের মত এক রাশ নীল জল রাশি।
সমুদ্রের প্রেমে আমি বার বার পড়েছি,কিন্তু সেইন্ট মার্টিন এর সমুদ্রের পানিতে যেনো ১ টা অন্যরকম ভালোলাগা । অদ্ভুত এক মায়া কাজ করেছে সমুদ্রের প্রতি। অনেক বাধা বিপত্তি পেড়িয়ে অতঃপর আমি আমার স্বপ্নের জায়গায় যেতে অনুমতি পাই। তাই নিয়ে ই নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করব।

ঢাকা থেকে সেইন্ট মার্টিন পরিবহনে টেকনাফের উদ্দেশ্যে রওনা হই। টেকনাফ পৌছা মাত্র দেখতে পেলাম সূর্য উদয়।
সকাল ৭ টায় ঘাটে নেমে নাস্তা করে কেয়ারি সিন্দাবাদ জাহাজে উঠে পড়লাম। জাহাজ সময় মত ছাড়ল। প্রথম জাহাজে উঠে খুশিতে অাত্মহারা হয়ে গেলাম। সীগাল গুলো কি দারুন ভাবে চেয়ে থাকে কখন চিপস পাবে। নদী থেকে জাহাজ যখন মাঝ সমুদ্রে যাচ্ছিল লক্ষ্য করলাম নীল পানি।এত্ত স্বচ্ছ পানি দেখিনি।মাঝে মাঝে দু একটা পানির বোতল চিপসের প্যাকেট দেখে মন খারাপ হয়েছে, কেন এত অসচেতন আমরা!😞 ১২ঃ৩০ এর দিকে সেন্টমার্টিন পৌছে হোটেলে চেক ইন করে বেড়িয়ে পড়লাম আমার প্রথম সমুদ্র দর্শনে৷। এ যেন এক অন্য রকম অনুভুতি। হাত বাড়িয়ে যেন আমাকে ই ছুতে চাইছে। বিশ্বাস ই করতে পারছিলাম না যে আমি এসেছি সমুদ্র তোমার কাছে!

পরের দিন লম্বা জার্নি করে এসে উঠতে একটু লেট হয়ে যায়,যার জন্য ছেড়াদ্বীপ রওনা হতে ৯ টা বেজে যায়। হোটেলে নাস্তা করে বের হয়ে পড়ি।
যখন রওনা দেই তখন ঝিরি ঝিরি বৃষ্টি ছিল। অবাক হয়ে চেয়ে রইলাম সমুদ্রের দিকে। সমুদ্র যেন তার রুপ দেখাতে শুরু করেছে,উত্তাল বড় বড় ঢেউ, গায়ে ঝিড়ি ঝিড়ি বৃষ্টি পড়ছে এ যেন এক অন্য রকম অনুভুতি । যে অনুভুতির হাত ছানি আমার আগে হয় নি। সেদিন দুপুর ১২ টা পর্যন্ত শুধু তার রুপ দেখে মুগ্ধ হয়েছি।

অনুভুতিঃ শুধু এই টুকু ই বলব এক স্বচ্ছ নীলপানির দ্বীপ নারিকেল জিঞ্জিরা। তবে অবাক করা বিষয় সেখানকার মানুষ অদ্ভুত রকমের ভাল। আমার এত টুকু জীবনে এত ভাল সহজ সরল মানুষ খুব কম দেখেছি৷ অন্য রকম মায়া তাদের চেহারায়। যখন চলে আসছিলাম খুব মন খারাপ হচ্ছিল। কিন্তু সিজন টাইম এ কিছু অসাধু ব্যবসায়ী রা সব কিছু দাম বেশী রাখে,এমন ও দেখছি ১০০ টাকার জিনিস ৬০০ টাকায় কিনতে,একটু ভালোভাবে দামাদামি করে নিবেন।

সেন্টমার্টিন এর একজন ঝালমুড়ি ওয়ালা কেউ দেখেছি ঝাল মুড়ি খেয়ে কাগজ টা ঝুড়িতে ফেলার জন্য প্রত্যেক কে বলছেন। তাই আমাদের সম্পদ আমরা নিজেরাই রক্ষা করব। সেন্টমার্টিন আমাদের সম্পদ। তাই কেউ কাগজ বোতল ফেলে পরিবেশ নষ্ট করবেন না।মনে রাখবেন ‘পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ই ঈমানের অঙ্গ’।
বিঃদ্রঃ আর হ্যা কারো কিছু জানার থাকলে কমেন্ট এ জিজ্ঞেস করবেন,আমি সেটা জেনে থাকলে অবশ্যই বলবো।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 BangaliTimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com