শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:১৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
মোদি এলে দেশের সব বিমানবন্দর অচল করে দেবে হেফাজত!

মোদি এলে দেশের সব বিমানবন্দর অচল করে দেবে হেফাজত!

মোদি এলে দেশের সব বিমানবন্দর অচল করে দেবে হেফাজত!

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেলে ভয়াবহ যুদ্ধ লেগে যেতে পারে। মোদিকে বাংলাদেশে আসতে দিলে ঢাকাসহ সারা দেশের বিমানবন্দর অচল করে দেয়া হবে।

তিনি বলেন, মোদির আগমনের কারণে দেশে অচল অবস্থার সৃষ্টি হলে এর দায়ভার সরকারকেই নিতে হবে। দেশের মানুষ গুজরাটের কসাইখ্যাত দিল্লি গণহত্যার সন্ত্রাসী মোদিকে বাংলাদেশের মাটিতে কোনোক্রমেই সহ্য করবে না তৌহিদি জনতা।

শনিবার হাটহাজারী মাদ্রাসার সম্মুখস্থ ডাকবাংলো চত্বরে এক বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। সম্প্রতি ভারতের রাজধানী দিল্লিতে অসংখ্য মুসলমানকে শহীদ করা হয়েছে এমন দাবি করে বাবুনগরী বলেন, উলামায়ে দেওবন্দের রক্তের বিনিময়ে বিশ্ব মানচিত্রে স্বাধীন ভারত রাষ্ট্র স্থান পেয়েছে।

বালাকোট আন্দোলন থেকে রেশমী রোমাল ও আজাদী আন্দোলন সবখানেই উলামায়ে কেরামের নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা আছে। ভারতের উচিত হবে নিজেদের দেশের সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা ও নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করা।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, হাটহাজারী মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা নূরুল ইসলাম জাদীদ, হেফাজত নেতা মুফতি মাহমুদুল হাসান গুনভী, মাওলানা নসীম সাহেব, মাওলানা মীর মুহাম্মদ কাসেম, মাওলানা মুফতি মুহাম্মদ আলী কাসেমী প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে বিক্ষুব্ধ জনতা চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে নরেন্দ্র মোদির কুশপুত্তলিকা দাহ করে। এ সময় উক্ত মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় আধা ঘণ্টা পর পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

আরও পড়ুন… মুজিববর্ষে সাম্প্রদায়িক মোদিকে চায় না ইবি শিক্ষার্থীরা

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে জাতীয়ভাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে বয়কটের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) শিক্ষার্থীরা।

শনিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক সংলগ্ন ‘মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব’ মুর‌্যালের সামনে এ মানববন্ধন করেন তারা।

এ সময় শিক্ষার্থীরা ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায় সাম্প্রদায়িক মোদির ঠাই নেই’, ‘সাম্প্রদায়িক মোদিকে বাংলাদেশে চাই না’, ‘মুসলিমদের উপর হামলা বন্ধ কর, বন্ধ কর’, ‘গো ব্যাক মোদি’, ‘বয়কোট মোদি,’ এমন বিভিন্ন প্রতিবাদী স্লোগান দেন।

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে মুসলমানদের ওপর সহিংসতার প্রতিবাদে মোদিবিরোধী এ সব স্লোগান দেন শিক্ষার্থীরা। এতে শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

মানববন্ধনে মোদিকে উগ্রবাদী ও দাঙ্গাবাজ আখ্যায়িত করে শিক্ষার্থীরা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সব সময় অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখতেন। অপরদিকে নরেন্দ্র মোদি সাম্প্রদায়িক চেতনায় ভারতে মুসলমানদের উৎখাত করার জন্য তাদের ওপর হামলা চালাচ্ছেন। মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে মোদির মতো একজন সাম্প্রদায়িক ব্যক্তির উপস্থিতি কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *