রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ০৫:২১ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭৬৮ জন করোনা শনাক্ত, মারাগেছেন আরও ২৮ জন 30TH MAY, 2020

সংবাদ শিরোনাম:
জ্বর সর্দি-কাশি প্রতিরোধে পাতে রাখুন কাঁচামরিচ আল-আকসা মসজিদের গ্র্যান্ড ইমামকে আটক করল ইসরাইল করোনার ভ্যাকসিন ‘প্রস্তুত’, ৯৯ শতাংশ কাজ করার নিশ্চয়তা চীনের লিবিয়া হ’ত্যা’কা’ন্ডের মূলহোতা বাংলাদেশী শামীম, তাকে হ’ত্যার প্রতিশোধ নিতে ২৬ হ’ত্যা’কা’ন্ড (বিস্তারিত) ফেসবুকে মাফ চেয়ে পোস্ট দেয়ার কিছুক্ষণ পরই সাংবাদিকের মৃত্যু করোনা চিকিৎসায় ডা. জাফরুল্লাহ’র উদ্যোগে এবার ‘প্লাজমা ব্যাংক’ দক্ষিণ কোরিয়ায় চালুর একদিন পরই বন্ধ আড়াই শতাধিক স্কুল লিবিয়ার কাছে ক্ষতিপূরণ চেয়েছে বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী চালু হচ্ছে গণপরিবহন, বাড়ছে ৮০ শতাংশ ভাড়া সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৯তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ
এক মাস দোকান বন্ধ, জুতার বক্সে মিলল ২০০ গোখরা

এক মাস দোকান বন্ধ, জুতার বক্সে মিলল ২০০ গোখরা

এক মাস দোকান বন্ধ, জুতার বক্সে মিলল ২০০ গোখরা

এক মাস দোকান বন্ধ – লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজে’লার বড়খাতা বাজারে জুতার দোকান পরিষ্কার করতে গিয়ে ২০০টি বিষাক্ত

গোখরা সাপের বাচ্চা উ’দ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে বড়খাতা বাজার রেল গেট এলাকায় সাফল্য সু-স্টোরের

জুতার বক্স থেকে সাপের বাচ্চাগুলো বেড়িয়ে আসে।দোকানের মালিক বাদশা মিয়া বলেন, করো’নাভাই’রাস পরিস্থিতির কারণে প্রায় এক

মাস দোকান বন্ধ ছিল। তাই বৃহস্পতিবার দুপুরে দোকান পরিষ্কার করতে যাই।

এ সময় দোকানের ভেতরের জুতার বক্সের মধ্যে প্রথম একটি বিষাক্ত গোখরা সাপ দেখতে পাই। পরে একে একে জুতার বক্সগুলো খুললে

সাপের বাচ্চা বের হতে শুরু করে। এ সময় উপস্থিত ক্রেতারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। পরে স্থানীয়রা লা’ঠি দিয়ে সাপের বাচ্চাগুলোকে

মে’রে ফেলেন। দোকান থেকে ২০০টি গোখরা সাপের বাচ্চা বের করে মে’রে ফেলা হয়েছে।এ বিষয়ে বড়খাতা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডে

সদস্য আব্দুর সাত্তার বলেন, ওই দোকানে আরও সাপ থাকতে পারে। তাই দোকানের মালিক বাদশাকে সব কিছু পরিস্কার করে দোকানটি

খুলতে বলা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃপরিবারের ৬৫ বছর বয়সী বৃদ্ধ মানুষটি আর নেই। স্বজন হা’রানোর বেদনায় ভা’রাক্রান্ত এ পারিবারের পাশে দাঁড়ালেন না

এলাকাবাসী। উল্টো নিষ্ঠুর আচরণ।তারা এই বৃদ্ধের লা’শ দাফন করতে দেবেন না। নিরূপায় সন্তানরা ঠিক করলেন, ঢাকা থেকে বাবার

লা’শ নিতে হবে গ্রামে।ছে’লে-মে’য়ে, স্বজনরা বাবার লা’শ নিয়ে গ্রামে ছুটলেন। কিন্তু শহর, গ্রামে এই নিষ্ঠুরতা যেন একাকার। সেখানেও

তাদের বাবার লা’শ দাফনে বাধা।

এলাকাবাসীর স’ন্দেহ ওই একই।উপায় না দেখে উপজে’লা প্রশাসনকে বিষয়টি জানান তারা। অবশেষে তাদের পাশে এসে দাঁড়ান

উপজে’লা স্বাস্থ্য কর্মক’র্তা, ভাইস চেয়ারম্যান ও কয়েকজন মু’সল্লি। তারা বৃদ্ধের লা’শ উপজে’লায় এনে গোসল ও জানাজা পড়ান।

করো’নাস’ন্দেহে দেশে লা’শ দাফন করতে না দেয়ার এটাই প্রথম ঘটনা নয়। এই বৃদ্ধের পরিবারের সাথে দুটি ঘটনার একটি ঘটেছে

রাজধানীর গেন্ডারিয়ায়। দ্বিতীয়টি ঘটেছে নিজ গ্রাম ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজে’লার চুড়াইন ইউনিয়নে মু’সলিমহাটি গ্রামে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *