রবিবার, ০৯ অগাস্ট ২০২০, ০৮:৩০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
সিনহার মৃত্যুর দিন এসআই লিয়াকতের সঙ্গে কথা হয়েছিল কোবরার রাজস্থানে ‘জয় শ্রী রাম’ ও ‘মোদী জিন্দাবাদ’ না বলায় এক ব্যক্তিকে বেধড়ক মারধর সন্তানকে স্তন্যপান করাতে যাওয়ার সময় ইসরায়েলি সেনার গুলিতে নিহত মা! এবার নিরব-ইমনের সঙ্গে মিথিলার এক ঘণ্টা করোনা তাড়াতে পাঁপড় খেতে বলা সেই ভারতীয় মন্ত্রী করোনা আক্রান্ত রাশিয়ার ঘোষণা, করোনার প্রথম ভ্যাকসিন আসছে ১২ আগস্ট হাজিদের পাথর নিক্ষেপে পদদলিত হয়ে মৃত্যু থামিয়ে ছিলেন এই বাংলাদেশি ইঞ্জিনিয়ার পানির চেয়ে কম দামে করোনার ভ্যাকসিন মিলবে ভারতে! মোবাইল টাওয়ার থেকে ফ্রি ওয়াইফাই আসছে বাংলাদেশের ৮ রুট দিয়ে পণ্য পরিবহন করতে চায় ভারত
ডিপজলের বিরুদ্ধে হত্যার হুমকির অভিযোগে প্রযোজকের জিডি

ডিপজলের বিরুদ্ধে হত্যার হুমকির অভিযোগে প্রযোজকের জিডি

ডিপজলের বিরুদ্ধে হত্যার হুমকির অভিযোগে প্রযোজকের জিডি

মিশা-জায়েদের পদত্যাগ চাওয়ায় প্রযোজক সমিতির সদস্য জামাল পাটোয়ারীকে খুনের হুমকি দিয়েছেন অভিনেতা, প্রযোজক মনোয়ার হোসেন ডিপজল। এমন অভিযোগ এনে ডিপজলের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন জামাল পাটোয়ারী।

সোমবার (২৭ জুলাই) তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় ডিপজলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন জামাল।

জিডিতে ডিপজলের ব্যবহার করা একটি ফোন নম্বর উল্লেখ করে তিনি বলেন, শিল্পী সমিতির জের ধরে গত ২৬ জুলাই মোবাইল ফোনে কল দিয়ে শিল্পী সমিতির সহ-সভাপতি মনোয়ার হোসেন ডিপজল তাকে খুনের হুমকি দেন। আর কখনোই বউ বাচ্চার মুখ দেখতে পাবি না, তোর লাশ খুঁজে পাওয়া যাবে না এসব বলে জামালকে হুমকি দেন ডিপজল।

এর আগেও আরো দুইবার ডিপজল হুমকি দিয়েছেন বলেও উল্লেখ করা হয়েছে জিডিতে। তাই বাধ্য হয়ে জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় জামাল পাটোয়ারী পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন।

সাধারণ ডায়েরির বিষয়ে ডিপজল বলেন, ‘জামাল পাটোয়ারী কে? আমি তাকে চিনি না। আমার এত সময় নেই যে যাকে চিনি না তাকে খুঁজে বের করে গালাগালি করব। আর আমার ওই বয়সও নেই যে কাউকে গালি দেব। হয়ত ২০ বছরের তরুণ থাকলে গালি দিতাম সেটা মানানসই হতো। কন তো এখন কি আর হুমকি দেওয়ার বয়স আছে আমার?’

প্রসঙ্গত, গত ১৯ জুলাই চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের পদত্যাগ চেয়ে এফডিসির সামনে ভোটাধিকার হারানো ১৮৪ শিল্পী মানববন্ধন করেন। যেখানে জামাল পাটোয়ারীও অংশ নেন।

২০১৭-১৮ সালের শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ৬শ ২৪ জন। মিশা সওদাগর-জায়েদ খান প্যানেল বিজয়ী হওয়ার পর এ তালিকা থেকে ১শ ৮১ জন ভোটারের ভোটাধিকার বাতিল করে কেবল সহযোগী সদস্য করা হয়। নতুন করে ২০ জন শিল্পীকে ভোটার করা হয়। এরপর শিল্পী সমিতির ২০১৯-২০ মেয়াদের নির্বাচনে ভোটারের সংখ্যা ছিলো ৪৪৯ জন।

গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ  পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

https://www.facebook.com/BangaliTimesofficel

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *