বৃহস্পতিবার, ০৬ অগাস্ট ২০২০, ০৩:৩৯ অপরাহ্ন

সদ্য জন্ম নেওয়া সন্তানের পর করোনায় চলে গেলেন মেডিকেল শিক্ষার্থী

সদ্য জন্ম নেওয়া সন্তানের পর করোনায় চলে গেলেন মেডিকেল শিক্ষার্থী

সদ্য জন্ম নেওয়া সন্তানের পর করোনায় চলে গেলেন মেডিকেল শিক্ষার্থী

গেল বছরের আগস্টে বিয়ে করেছিলেন মেডিকেল শিক্ষার্থী শেফা ইসলাম (তুলি)। এ বছরের ২৪ জুলাই তার কোল জুড়ে আসে সন্তান। কিন্তু মাত্র এক দিন বয়সেই তার সন্তান মারা যায়। সন্তান মারা যাওয়ার একদিন পরেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজের ফাইনাল ইয়ারের শিক্ষার্থী শেফা ইসলাম মারা গেছেন।

রোববার (২৬ জুলাই) সকালে রাজধানী স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে শনিবার তার সদ্য জন্ম নেওয়া সন্তানটিও মারা যায়।

মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী শেফা ইসলামের হঠাৎ চলে যাওয়া নিয়ে ইশরাত মৌরি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে লিখেছেন, ‘২৩ তারিখে আমাকে মেয়েটা কল দিয়ে বলেছিল, ‘আপু, আমার বেবি হবে, হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে। স্যাচুরেশন কমে যাচ্ছে, রেজাল্টটা পেলে ভর্তি হতে পারব।’ মাত্র চারদিন আগে (২২ জুলাই) আমাদের (প্ল্যাটফর্ম) মাধ্যমে স্যাম্পল দিয়েছিল। ২৩ তারিখ রাতেই রেজাল্ট পেয়ে মেয়েটাকে ম্যাসেজ দিলাম। আজ শুনি মেয়েটা নাই।’

তিনি আরো লেখেন, তুলি গর্ভবতী ছিল, গত পরশু ওর বাচ্চাটা জন্ম নেয় এবং গতকাল বাচ্চাটা মাত্র এক দিন বয়সেই মারা যায়। আর আজ তুলিও চলে গেল।

স্কয়ার হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ‘গত ২৩ জুলাই করোনাভাইরাস পজিটিভ নিয়েই শেফা ইসলাম ভর্তি হয়েছিলেন। তিনি সাত মাসের গর্ভবতী ছিলেন। তার বাচ্চা অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে হয়। বাচ্চা হওয়ার একদিন পরই বাচ্চাটা মারা যায়। তবে বাচ্চার করোনাভাইরাস নেগেটিভ ছিল।

হলি ফ্যামিলি মেডিকেল কলেজের শিক্ষক ও পরিচালক মোহাম্মদ মোর্শেদ গণমাধ্যমে বলেন, ‘অনেক দুঃখজনক খবর। পড়াশোনা প্রায় শেষ পর্যায়ে ছিল। অল্প কিছু দিনের মধ্যে চিকিৎসক হয়ে বের হতো। এর মধ্যেই সে মারা গেল।’

দুই ভাইবোনের মধ্যে শেফা ছিলেন বড়। তার ছোট ভাই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে পড়ছেন। শেফার স্বামী পেশায়িএকজন চিকিৎসক।

গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ  পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

https://www.facebook.com/BangaliTimesofficel

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *