রবিবার, ০৯ অগাস্ট ২০২০, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
সিনহার মৃত্যুর দিন এসআই লিয়াকতের সঙ্গে কথা হয়েছিল কোবরার রাজস্থানে ‘জয় শ্রী রাম’ ও ‘মোদী জিন্দাবাদ’ না বলায় এক ব্যক্তিকে বেধড়ক মারধর সন্তানকে স্তন্যপান করাতে যাওয়ার সময় ইসরায়েলি সেনার গুলিতে নিহত মা! এবার নিরব-ইমনের সঙ্গে মিথিলার এক ঘণ্টা করোনা তাড়াতে পাঁপড় খেতে বলা সেই ভারতীয় মন্ত্রী করোনা আক্রান্ত রাশিয়ার ঘোষণা, করোনার প্রথম ভ্যাকসিন আসছে ১২ আগস্ট হাজিদের পাথর নিক্ষেপে পদদলিত হয়ে মৃত্যু থামিয়ে ছিলেন এই বাংলাদেশি ইঞ্জিনিয়ার পানির চেয়ে কম দামে করোনার ভ্যাকসিন মিলবে ভারতে! মোবাইল টাওয়ার থেকে ফ্রি ওয়াইফাই আসছে বাংলাদেশের ৮ রুট দিয়ে পণ্য পরিবহন করতে চায় ভারত
পৃথিবীর ভয়ংকরতম সাবমেরিন কাজান! (ভিডিও)

পৃথিবীর ভয়ংকরতম সাবমেরিন কাজান! (ভিডিও)

পৃথিবীর ভয়ংকরতম সাবমেরিন কাজান! (ভিডিও)

সাবমেরিন এমন এক যুদ্ধজাহাজ যা পানির নিচে কোন রাডারের সংস্পর্শে না এসেই চলতে পারে, হানতে পারে ভয়ংকর হামলা।

কাজান বা কে-৫৬১। এটি একটি রুশ সাবমেরিন বা ডুবোজাহাজের নাম। চলতি বছরেই এই সাবমেরিনটি রুশ নৌবাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত হবে। ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে শক্তিশালী ওই সাবমেরিনটি উন্মোচন করে পুতিন সরকার। দেশটির পরমাণুবিদদের দাবি এটি বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী অ্যাটাক সাবমেরিন।

ইতোমধ্যেই রাশিয়ার অত্যাধুনিক পরমাণু শক্তিচালিত সাবমেরিন ‘কাজান’কে পানিতে নামানো হয়েছে। রাশিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় বন্দর সেভারোদভিসিস্কে ইয়াসেন এম শ্রেণির ডুবোজাহাজ কাজানের সমুদ্রে নামানোর অনুষ্ঠানটি করা হয়। সাগরে পরীক্ষা শেষ করার পর চলতি বছরে রুশ নৌবাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত হবে কাজান।

নতুন এই সাবমেরিন হাতে পাওয়ার পর সাগরে টহল দেওয়ার ক্ষেত্রে রুশ নৌবাহিনী প্রাক্তন সোভিয়েত আমলের পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন রুশ নৌবাহিনীর প্রধান অ্যাডমিরাল ভ্লাদিমির কোরোলেভে।

এছাড়া, একই শ্রেণির আরও চারটি ডুবোজাহাজ ২০২৩ সালের মধ্যে তৈরি করা হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন রাশিয়ান নৌবাহিনী প্রধান।

রুশ নৌবাহিনীর প্রচলিত ডুবোজাহাজ বাহিনীর পুরনো ‘আকুলা শ্রেণির ডুবোজাহাজের স্থলাভিষিক্ত হবে ইয়াসেন এম শ্রেণি। এতদিন আকুলা শ্রেণিকে রুশ নৌবাহিনীর প্রধান অ্যাটাক সাবমেরিন হিসেবে গণ্য করা হত।

রাশিয়ার নতুন এ সাবমেরিন ৩১ কিলোনট বেগে চলতে পারে। এতে তিনশ টর্পেডো ও অন্যান্য অস্ত্র সজ্জিত করার ব্যবস্থা রয়েছে। রাশিয়ান রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা তাস জানিয়েছে, নতুন এ সাবমেরিন শত্রুপক্ষের সাবমেরিনকে ধ্বংস করতে পারে।

এছাড়া এটি জাহাজ, নৌঘাটি ও বন্দর ধ্বংস করতে সক্ষম। এতে ৯০ জন ক্রু থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া সাবমেরিনটি পানির ৬০০ মিটার নিচে নামতে পারে। বাইরের কোনো সহায়তা ছাড়া এটি ১০০ দিন পানির নিচে থাকতে পারে।

গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ  পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

https://www.facebook.com/BangaliTimesofficel

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *