শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৩৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
আরেক দফা বাড়ল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি,কলেজশিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু ৪ অক্টোবর কাশ্মীরে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর গুলিতে ভারতীয় সেনাসদস্য নিহত এরদোয়ানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ আজারবাইজানের ফার্স্ট লেডির বাবরি মসজিদ মামলা: ভারতের আদালতের আরেকটি লজ্জাজনক রায়! ‘ভারতে এতটা কোণঠাসা কখনোই ছিল না মুসলমানরা’ ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে তিন ভারতীয় সেনা নিহত মি’ন্নির ফাঁ’সি কা’র্য’কর হলে আমি মিলাদ দেব: নয়ন ব’ন্ডের মা কা’রা’গার থেকে মুঠোফোনে বাবা-মায়ের সঙ্গে মি’ন্নির কান্নাকাটি সিনেমার গল্পকেও হার মানায় রিয়াজ ও তার স্ত্রীর প্রেম-বিয়ের কাহিনী ‘ইনশাল্লাহ’ বললেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী বাইডেন, টুইটারে ঝড়
ছেলে বোলার, মা ব্যাটসম্যান

ছেলে বোলার, মা ব্যাটসম্যান

ছেলে বোলার, মা ব্যাটসম্যান

বল ছুঁড়ছে ছোট্ট এক শিশু। ব্যাট হাতে আপাদমস্তক হিজাব পরিহিত একজন মহিলা। পরে জানা গেল, সেই ব্যাটসম্যান হলেন মা, আর বোলার শিশুটি তারই সন্তান।

অভাবনীয় এমন এক চিত্রই দেখা গেছে রাজধানীর পল্টন মাঠে। অনেকের চোখে অনুপ্রেরণাদায়ক এক ছবিও বটে।

করোনা ভাইরাসের আগ্রাসনে এমনিতে সারাদেশ থমকে আছে। মাঠে নেই খেলাধুলাও। তারপরও দুই-একজন মাঠে আসছেন, খেলতে নামছেন।

রাজধানীর পল্টন ময়দানে চলছিল বেসবল চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল ম্যাচ। সেই ম্যাচ দেখতে হাজির হয়েছেন গুটিকয়েক দর্শকও। তবে সবার চোখ আটকে গেছে পাশের ক্রিকেট পিচে।

১১ বছর বয়সী ছোট্ট শেখ ইয়ামিন সিনান বোলিং করছিলো তার মা ঝর্ণা আক্তারকে। ব্যাটসম্যান মা’কে নিজের লেগস্পিনের ঘুর্ণিতে কাবু করে বেশ উল্লাস করতেও দেখা যায় শিশুটিকে। এসময় পাকিস্তানী কিংবদন্তি লেগস্পিনার শহীদ আফ্রিদির মতো উদযাপন করতেও দেখা যায় শিশু লেগস্পিনারকে।

জানা গেছে, পাশের আরামবাগের একটি মাদ্রাসার ছাত্র ইয়ামিন সিনান। পড়াশুনার পাশাপাশি কবি নজরুল ক্রিকেট একাডেমিতে অনুশীলন করে সে। তবে তার সতীর্থ কিংবা কোচ কেউই তখনো এসে না পৌঁছুনোয় মায়ের সঙ্গেই অনুশীলনে নেমে পড়েছে ছোট্ট ইয়ামিন।

এই ক্ষুদে ইয়ামিনদের হাত ধরেই একদিন বিশ্ব ক্রিকেট শাসন করবে টাইগাররা, এমন স্বপ্ন তো বোনাই যায়!

গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ  পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

https://www.facebook.com/BangaliTimesofficel

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *