বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:৫৫ অপরাহ্ন

মুসলমানদের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে ম্যাক্রোঁকে – লিবিয়ার হুশিয়ারি

মুসলমানদের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে ম্যাক্রোঁকে – লিবিয়ার হুশিয়ারি

মুসলমানদের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে ম্যাক্রোঁকে – লিবিয়ার হুশিয়ারি

হজরত মুহাম্মাদ (সা.) কে অবমাননা করে বক্তব্য দেয়ায় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে বিশ্বের মুসলমানদের কাছে ক্ষমা চাইতে আহ্বান জানিয়েছে লিবিয়া।দেশটির জাতীয় ঐক্যমত্যের সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে এই আহ্বান জানানো হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

সোমবার (২৬ অক্টোবর) রাজধানী ত্রিপোলিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মুহাম্মাদ আল-কাবলাবি বলেন, ম্যাক্রোঁর ইসলামকে অবমাননা করে দেয়া বক্তব্যের জন্য তার প্রতি মানুষের ঘৃণা বেড়েছে। তিনি দেশে রাজনৈতিক সুবিধা নিতেই তিনি এ ধরনের বক্তব্য দিয়েছেন।

আরব নিউজের খবরে আরও বলা হয়, ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালত থেকে দেয়া ২০১৮ সালের এক রায়ের কথা উল্লেখ করেন তিনি বলেন, মহানবী (সা.) এর অবমাননা বাক স্বাধীনতার মধ্যে পড়ে না। তার উসকানিমূলক বক্তব্য প্রত্যাহার করে বিশ্ব মুসলিমের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করার জন্য আহ্বান জানান।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরনের ইসলাম অবমাননাকর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি। এই বাহিনী সোমবার তেহরানে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলেছে,

আধিপত্যকামী ও ইহুদিবাদী চেতনার অধিকারী পশ্চিমা শাসকরা গভীর সংকট পতিত মানবতা-বিরোধী পশ্চিমা সমাজকে তাদের নিজেদের সৃষ্ট ঘুর্ণিপাক থেকে রক্ষা করতে পারবে না।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বিবৃতিতে বলা হয়, বিশ্বনবীর (সা.) অবমাননাকর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া শুধুমাত্র ফরাসি পণ্য বর্জন ও মুসলমানদের তীব্র প্রতিবাদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না। ফ্রান্স যেন মুসলিম বিশ্বের পক্ষ থেকে এর চেয়েও কঠিন প্রতিক্রিয়ার অপেক্ষায় থাকে।

আইআরজিসি’র বিবৃতিতে বলা হয়, রহমতের নবী (সা.)-এর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ফ্রান্সসহ ইউরোপীয় দেশগুলোতে যখন দলে দলে মানুষ ইসলাম গ্রহণ করছে তখন ফ্রান্সের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে বিশ্বনবী (সা.)-এর অবমাননা করা হয়েছে। আর এখান থেকে কথিত বাক স্বাধীনতার ধ্বজাধারীদের দ্বৈত চরিত্র স্পষ্ট হয়ে গেছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

তবে এ ধরনের অপচেষ্টা চালিয়ে রাসূলে আকরাম হযরত মুহাম্মাদ মুস্তাফা (সা.)-এর সুউচ্চ ভাবমর্যাদায় বিন্দুমাত্র কালিমা লেপন করা যাবে না বলে আইআরজিসি’র বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

ফরাসি পত্রিকা শারলি এবদো সম্প্রতি মানবতার মুক্তির দূত বিশ্বনবী (সা.)-এর অবমাননাকর কার্টুনগুলো পুনর্মুদ্রণ করেছে। ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরন সব ধরনের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ও কূটনৈতিক রীতিনীতির মাথা খেয়ে ঘোষণা করেছেন, তার দেশে এ ধরনের কার্টুন প্রকাশ অব্যাহত থাকবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ফরাসি প্রেসিডেন্টের এই ইসলাম অবমাননাকর বক্তব্যের বিরুদ্ধে মুসলিম বিশ্ব ক্ষোভে ফেটে পড়েছে। ইরানসহ বহু মুসলিম দেশে ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দেয়া হয়েছে এবং ম্যাকরনকে তার ইসলাম-বিদ্বেষী বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ  পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

https://www.facebook.com/BangaliTimesofficel

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *