মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০১:২৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
সাব’ধান! না’রীর যো’নীতে মুখ দেওয়া’র আগে এই বি’ষয়টা জেনে নিন। প্র’ত্যেক পু’রু’ষের জা’না দরকার যৌ’ন চা’হিদা মেটাতে একি কা’ণ্ড করলেন স’দ্য বিবা’হিতা ত’রুণী ! বিস্তারিত ভিতরে ৫ দিনে ৩ টা খা’ট ভা’ঙলো হোম কোয়া’রেন্টা’ইনে থাকা ব’রিশালের নব দ’ম্পতি ! মা’কে পাশে’র রুমে রে’খে প্রেমিকে’র সঙ্গে শা’রীরি’ক স’ম্প’র্কে লি’প্ত কিশো’রী মায়ে’র জন্য পা’ত্র খুঁজছেন ক’লেজ পড়ুয়া মে’য়ে! বাংলাদেশে সবাইকে ছাড়িয়ে শীর্ষে তুর্কি অ্যাপ ‘বিপ’ পশ্চিমা কোনো দেশের নির্দেশ মানব না: এরদোগান জয়ী হয়েই বিএনপি-জামায়াত প্রার্থীদের বাসায় কাদের মির্জা দ্বি,গুণ উ’ত্তেজনা বাড়াতে এই বিশেষ কাজ চ’রম তৃ’প্তি দেয় মে’য়েদের মি’লনকালে মে’য়েরা ব্য’থা পাওয়ার ৫টি কারণ
ইঁদুরের ধান বেচে শীতের পোশাক!

ইঁদুরের ধান বেচে শীতের পোশাক!

ইঁদুরের ধান বেচে শীতের পোশাক!

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার বিস্তীর্ণ ফসলের মাঠে ঝরে পড়া ও ইঁদুরের গর্ত থেকে ধান সংগ্রহের আনন্দে মেতেছে হতদরিদ্র শিশুরা। সংগ্রহ করা ধান বিক্রি করেই তারা কিনবে শীতের পোশাক।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

প্রতি বছর ধান কাটা শেষ হতেই ঝরে পড়া ধান কুড়াতে ব্যস্ত সময় পার করে একদল শিশু-কিশোর। সংগ্রহ করা ধান বিক্রি করেই তারা শার্ট, প্যান্ট, জুতা কিংবা শীতের পোশাক কিনবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বিস্তীর্ণ ফসলের মাঠ থেকে কৃষকরা ধান নিয়ে যাওয়ার পর একদল শিশু-কিশোর হাতে খুন্তি-কোদাল, চালন, ডালা, ব্যাগ নিয়ে খুঁজে ফিরছে ইঁদুরের গর্ত। ইঁদুরের গর্তে জমানো ধান ব্যাগে ভরে তারা। এছাড়া জমিতে পড়ে থাকা ধানও কুড়িয়ে ব্যাগে ভরতে দেখা গেল।

 

 

Lalmoni-(2)

 

 

জানা গেছে, চলতি মৌসুমে ধান কাটা ও মাড়াই চলছে। এবার ধানের দাম বেশি পাওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। এক মণ ধান বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার থেকে ১ হাজার ১০০ টাকায়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শিশুদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মাঠের ধান কৃষকরা কেটে নিয়ে যাওয়ার পর মাটিতে ধানের শীষ পড়ে থাকে। সেগুলো চেলে নেয়া হয়। এছাড়া ইঁদুরের গর্ত খুঁড়লে পাওয়া যায় ধান। প্রতি বছরই ধান সংগ্রহে আনন্দে মেতে ওঠে তারা। ধান বিক্রির টাকা দিয়েই শীতের জ্যাকেট ও জুতা কিনে থাকে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মাঠে ধান সংগ্রহ করতে আসা শিশু রুবেল হোসেন (১০) জানায়, আমরা বিভিন্ন মাঠে ধান সংগ্রহ করে তা বিক্রি করি। সেই টাকা দিয়ে শীতের জ্যাকেট কিনব।

 

 

Lalmoni-(1)

 

কাকিনা এলাকার কৃষক ফারুক ইসলাম জানান, ধান কাটার পর মাটিতে পড়ে থাকা ধান শিশু-কিশোররা সংগ্রহ করে, এতে আমরা বাধা দেই না। এছাড়া গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের শিশুরাই দল বেঁধে ধান সংগ্রহ করে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

কালীগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সৈয়দা সিফাত জাহান জানান, খেতে এভাবে ইঁদুরের গর্ত থেকে ধান সংগ্রহ করা নিরাপদ নয়। তবে আধুনিক পদ্ধতিতে কৃষকরা খেতে ধান কাটা ও মাড়াই করলে ধান মাটিতে পড়া এবং ইঁদুর নষ্ট করতে পারবে না। এতে কৃষকরাও উপকৃত হবেন।

গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ  পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

https://www.facebook.com/BangaliTimesofficel

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *