সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৯:৩০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
মা’কে পাশে’র রুমে রে’খে প্রেমিকে’র সঙ্গে শা’রীরি’ক স’ম্প’র্কে লি’প্ত কিশো’রী

মা’কে পাশে’র রুমে রে’খে প্রেমিকে’র সঙ্গে শা’রীরি’ক স’ম্প’র্কে লি’প্ত কিশো’রী

মা’কে পাশে’র রুমে রে’খে প্রেমিকে’র সঙ্গে শা’রীরি’ক স’ম্প’র্কে লি’প্ত কিশো’রী

নেত্রকোনার ম’দন উপজে’লায় বিয়ের প্র’লোভন দেখিয়ে ধ’র্ষণের চেষ্টার অ’ভিযোগে থানায় মা’মলা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে ম’দন থানায় নারী ও শিশু নি’র্যাতন আইনে এই মা’মলা করেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মা’মলায় আ’সামি করা হয়েছে মো. হাবিবুর রহমানের ছেলে মামুন (২২), মৃ’ত আব্দুল গফুরের ছেলে হাবিবুর রহমান (৫০) ও সবুর মিয়া (৩৫) নামের তিনজনকে।

মা’মলার বিবরণে জানা গেছে, ম’দন উপজে’লার মাঘান ইউনিয়নের রুহুলী গ্রামের ধ’র্ষণকারী মামুন দীর্ঘদিন ধরে প্রেম-ভালোবাসার অ’ভিনয় করে বিয়ের প্র’লোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলে বাদীর কিশোরী কন্যার সাথে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

গেলো সোমবার মোবাইল ফোনে রাত তিনটার দিকে বিবাদী মামুন ভিকটিমের স’ঙ্গে যোগাযোগ করে ভিকটিমের রান্নাঘরে কৌশলে নিয়ে আসে। এ সময় পরিবারের লোকজন টের পেয়ে রান্নাঘরে গিয়ে বৈদ্যুতিক বাতি জ্বা’লিয়ে মামুনকে অনৈ’তিক কাজে লি’প্ত থাকতে দেখতে পায়। পরে প্রতিবেশীরা এসে মামুনকে আট’ক করে।

খবর পেয়ে মামুনের বাবা হাবিবুর রহমান এবং ভ’গ্নিপতি সবুর মিয়া ঘটনাস্থলে এসে বিবাহবন্ধনের আশ্বা’স দিয়ে মামুনকে উ’দ্ধার করে নিয়ে যায়।পরবর্তীতে মামুন ও তার পরিবার বিয়ের কথা অস্বীকৃতি জানালে ভিকটিমের পরিবার আইনের আশ্রয় নেয়। এ ব্যাপারে ম’দন থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদুজ্জামান জানান, ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনজনের নামে মা’মলা করেছেন ভিকটিমের বাবা। আ’সামিদের গ্রে”প্তারের চেষ্টা চলছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *