রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০২:২৯ অপরাহ্ন

ভ্রমণ জনপ্রিয় হচ্ছে **রাঙ্গামাটির ঘাগড়া ঝর্ণা**

ভ্রমণ জনপ্রিয় হচ্ছে **রাঙ্গামাটির ঘাগড়া ঝর্ণা**

ভ্রমণ জনপ্রিয় হচ্ছে **রাঙ্গামাটির ঘাগড়া ঝর্ণা**

রাঙ্গামাটির চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি মহাসড়কের কাউখালী উপজেলার ঘাগড়া ইউনিয়নে ঝর্ণাটি অবস্থিত। এলাকাটি কলাবাগান নামেও পরিচিত। তাই স্থানীয়ভাবে এটি ‘কলাবাগান ঝর্ণা বা ঘাগড়া ঝর্ণা’ হিসেবে পরিচিত। এখানে পাহাড়ি ছড়ার মধ্য দিয়ে প্রায় দুই থেকে আড়াই কিলোমিটার হেঁটে যেতে হয় মূল ঝরনায়। তবে যাওয়ার পথে দেখা মেলে আরও ৫-৬টি ছোট-বড় ঝরনার।
রাঙ্গামাটি শহর থেকে সিএনজি ভাড়া করে যাওয়া যায় ঝরনাটিতে। ভাড়া নিতে পারে ২০০-২৫০ টাকা। মূল সড়ক থেকে হাতের বামে প্রবাহমান একটি ছোট্ট পাহাড়ি ছড়া রয়েছে। ছড়াটির উপর ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা অসংখ্য নুড়ি পাথরের উপর দিয়ে হেঁটে দুই পাশের অসংখ্য পাহাড় আর সবুজে ঢাকা গাছ-পালার সৌন্দর্য উপভোগ করতে করতে এগিয়ে যেতে হয় মূল ঝরনার দিকে।
প্রথম ঝরনা থেকে কিছুটা উঁচুতে উঠলে অপর ঝরনাটি পর্যটকদের ক্লান্তি দূর করে বিমোহিত করবে। এভাবে একেকটা ঝরনাধারা পেরিয়ে একের পর এক যত উঁচুতে উঠবেন; ততই আপনি মুগ্ধ হতে থাকবেন। মূল ঝরনায় যাওয়ার পথ ও পথের ধারে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা নুড়ি পাথার ও সবুজে ঢাকা অরণ্য মুগ্ধ করবে। আপনাকে আনন্দের অন্য এক রাজ্যে নিয়ে যাবে মুহূর্তেই।
এ পথের সর্বশেষ অংশে দেখা মিলবে আকাশচুম্বী সবচেয়ে বড় ঝরনাটির। ঝরনাটি এতই উঁচু যে, তার কাছে ঘেঁষতে ভয় পেয়ে যাবে যে কেউ। তবে জলপ্রপাতের একেবারে কাছে এসে তার সৌন্দর্য-সুধা পান করবে না, তা কি হয়? মনোরম এ প্রাকৃতিক ঝরনাগুলোর মূল বৈশিষ্ট্য হচ্ছে- সমতল থেকে স্তরে স্তরে অন্তত দেড় থেকে দু’শ ফুট উঁচু থেকে জল গড়িয়ে পড়ে। প্রতিটি ঝরনারই রয়েছে স্বতন্ত্র কিছু বৈশিষ্ট্য, যা না দেখলে কারো বিশ্বাস হবে না।
প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা অসংখ্য পর্যটকের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে ঝরনায়। এখানে একবার এলে সুযোগ পেলেই আবার আসতে ইচ্ছে হয়।
তবে ঝরনায় আসার পথ অনেকটা ঝুঁকিপূর্ণ। যে কোন সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এখানে নিরাপত্তারও ঝুঁকি রয়েছে। তাই পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন পর্যটকরা।
আসুন নিজের দেশকে জানি, ভ্রমণ হোক সার্থক।
যত্রতত্র ময়লা ফেলে পরিবেশ দূষণ করবেন না।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Bangalitimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com