রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০২:৪১ অপরাহ্ন

কোভিড সময়ে মালদ্বীপ ভ্রমন।

কোভিড সময়ে মালদ্বীপ ভ্রমন।

কোভিড সময়ে মালদ্বীপ ভ্রমন।

দেশের বাহিরে কোথাও ঘুরতে পারছি না অনেক দিন। এর মধ্যে আবার বেশীরভাগ দেশ বন্ধ। আবার অনেক দেশে কোয়ারেন্টাইন এর ঝামেলা। অনেকদিনের ইচ্ছা ছিল মালদ্বীপ ডুবে যাবার আগে ভ্রমন করা। এবং বিয়ের আগে থেকেই ২ জন ঠিক করেছিলাম মালদ্বীপ ভ্রমন করব। সেই হিসাবে মালদ্বীপ ভ্রমনের সিদ্ধান্ত নিয়ে নেই।
মালদ্বীপ দেশ এশিয়া মহাদেশে হলেও সেটা এশিয়া মহাদেশের অন্য সব দেশ এর থেকে সবচেয়ে দূরে। ভারত মহাসাগর এর মধ্যে ছোট্ট একটা দেশ। তাদের সব থেকে বেশী ট্যাক্স পর্যটন খাত থেকে পেয়ে থাকে তাই পর্যটকদের জন্য অনেক সুযোগ সুবিধা দেওয়া আছে। তাদের দেশে মুদ্রা মালদিভিয়ান রুপি হলেও ডলার সব জায়গায় চলে। আপনি যদি যেয়ে যেয়ে প্রাইভেট আইল্যান্ড রিসোর্টে থাকেন এবং এর বাহিরে কোথাও না যাওয়ার চিন্তা করেন তাহলে আপনার ডলার না ভাঙালেও চলবে। কারন তাদের সরকারের নিয়ম অনুযায়ী সকল রিসোর্ট এবং হোটেল আপনাকে ডলারে দাম বলবে এবং আপনি তাদের ডলারে পেমেন্ট করতে পারবেন। এটা ছাড়া তাদের অনেক দোকান ডলার নেয় কিন্তু তারা রেট কম ধরে দেয়।
আমরা গিয়েছিলাম গত ফেব্রুয়ারীতে। আমরা কাতার এয়ারওয়েজ এর ফ্লাইটে দোহা ট্র্যানজিট করে গিয়েছি। যদিও এখন মালদিভিয়ান এয়ারওয়েজ এর ডাইরেক্ট ফ্লাইট আছে কিন্তু আমি যখন টিকেট করেছি তখন মিডেল ইস্ট এর ট্র্যানজিট ছাড়া অন্য কোনো ফ্লাইট চালু ছিল না। এবং মালদিভিয়ান এবং কাতার এয়ারওয়েজ এর টিকেট এর দাম প্রায় সেম। এবং তখন কাতার এয়ারওয়েজ এর ফ্লাইট সব থেকে কম ছিল তাই কাতারে টিকেট করে। সাথে ট্র্যানজিট এর সময় ও কম।
মালদ্বীপে বাংলাদেশী দের জন্য কোন ভিসা লাগে না। আপনাকে শুধু রিটার্ন টিকেট এবং হোটেল বুক করে যাওয়া লাগবে। agoda.com booking.com hotels.com এইসব সাইট থেকে আপনি হোটেল বুকিং করতে পারবেন। আমি agoda.com থেকে Malahini Kuda Bandos রিসোর্টে বুক করেছিলাম এবং আগে পেমেন্ট না করে যেয়ে পেমেন্ট করার অপশন নেই। এখানে বলে রাখা ভালো এখন কোভিড এর কারনে মালদ্বীপে অনেক হোটেল বন্ধ আছে। আপনি https://visitmaldives.com/en/border-reopening-guide দেখে নিতে পারেন কোন কোন হোটেল, গেস্ট হাউস বা রিসোর্ট খোলা আছে। এবং এটাও খেয়াল রাখবেন আপনি সেখানে চাইলেও এখন এক দ্বীপ থেকে আরেক দ্বীপে ঘুরতে পারবেন না। তাই যদি হোটেল বা গেস্ট হাউসে থাকে যেই দ্বীপে আছে সেই দ্বীপেই থাকতে হবে। আপনি যদি ২ টা আলাদা দ্বীপে থাকতে চান সেটা আপনার যাত্রা এর আগে সব বুক করে আসতে হবে। এটা ছাড়া আপনার কোভিড নেগিটিভ সার্টিফিকেট সহ https://imuga.immigration.gov.mv/ethd/create ফিলাপ করে একটা QR কোড আসবে সেটা আপনার ফোনে নিয়ে নিতে হবে।
ফ্লাইটের ২ দিন আগে প্রাভা হেলথ থেকে আমরা কোভিড টেস্ট করি। স্যাম্পল দেওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই রিপোর্ট চলে আসে। এখন এয়ারপোর্টে করোনা এর কারনে সব কিছু নিয়ে ঝামেলা একটু বেশি। তাদের হেলথ স্ক্রিনিং করা। করোনা নেগিটিভ সার্টিফিকেট সহ তাদের বেশ কিছু ফর্ম ফিলাপ করা লাগে। আমরা এর জন্য বিমান হলিডেজ এর মিট অ্যান্ড গ্রিট সার্ভিস নিয়েছি। আমাদের র্যাম্প থেকে নিয়ে লাগেজ ড্রপ করে ইমিগ্রেশন এর আগে পর্যন্ত সব ফরমালিটি তারাই কমপ্লিট করে দিয়েছে। এর জন্য তারা প্যাসেঞ্জার প্রতি ৫০০ টাকা নেয়।
সন্ধ্যা ৬:৫০ এর ফ্লাইট ছিল। কাতারে ২:৩০ ঘন্টার ট্র্যানজিট দিয়ে সকাল ৭:৩০ এ আমাদের ফ্লাইট মালদ্বীপ পৌছায়। সেখানে ইমিগ্রেশন শেষ করে লাগেজ নিয়ে আমাদের বের হতে হতে ৮:৩০ বেজে যায়। ইমিগ্রেশনে আমাদের রিটার্ন টিকেট এবং হোটেল বুকিং দেখেছে শুধু। তবে আমার ই-পাসপোর্ট দেখে ইমিগ্রেশন অফিসার একটু সময় নিয়েছে। কারন সে এর আগে বাংলাদেশ থেকে কাউকে ই-পাসপোর্ট নিয়ে যেতে দেখে নাই। পরে তার উপরের কর্মকর্তা এর সাথে কথা বলে কনফার্ম হয়ে তারপর সীল দিয়ে আমাকে ফেরত দেয়।
মালদ্বীপে হুলহুলে বা মালে সিটি এর বাহিরে কোন দ্বীপে থাকলে সেটা সমুদ্র পার হয়ে যেতে হয়। সেটা কাছে হলে স্পীড বোটে এবং দূরে হলে সী-প্লেনে যাওয়া লাগে। আপনি যদি রিসোর্ট বুকিং করেন সাধারণত তাদের এয়ারপোর্ট ট্র্যান্সফার সার্ভিস থাকে। এর জন্য তারা আলাদা চার্জ নিতে থাকে। আমাদের রিসোর্ট কাছে হওয়ায় স্পীড বোট ট্র্যান্সফার ছিল। ১৫ মিনিটের মত সময় লেগেছে। এয়ারপোর্ট থেকে নিয়ে যাওয়া এবং পরে নিয়ে আসার জন্য প্রতি জনের ৮৫ ডলার চার্জ নিয়েছে।
আমরা Malahini Kuda Bandos এ বিচ ভিলা নিয়ে ছিলাম। সেখানে আমরা All Inclusive প্যাকেজ নিয়েছিলাম। এটার মধ্যে সকল প্রকার খাবার এবং বেভারেজ অন্তর্ভুক্ত। মালদ্বীপের রিসোর্ট এ খাবার এর জন্য আলাদা প্যাকেজ থাকে। শুধু ব্রেকফাস্ট, Half Board (ব্রেকফাস্ট এবং ডিনার), Full Board (ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ এবং ডিনার), All Inclusive (ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ, ডিনার এবং বেভারেজ)। আপনার মিল প্যাকেজে বেভারেজ না থাকলে আপনাকে পানি এর জন্যও আলাদা পে করতে হবে।
বাকি সব নিয়ে পর্ব-২
সব সময় ভ্রমনে পরিবেশ দূষণ পরিহার করুন। একজন পরিবেশ সুন্দর রাখলে সেটা পরেরজনকে সুন্দর রাখতে উদ্বুদ্ধ করবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Bangalitimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com