মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৫০ পূর্বাহ্ন

খালি নেই আইসিইউ; ছেলেকে বাঁচাতে মা ছাড়লেন বেড, ঘণ্টা খানিক পরেই মায়ের মৃত্যু

খালি নেই আইসিইউ; ছেলেকে বাঁচাতে মা ছাড়লেন বেড, ঘণ্টা খানিক পরেই মায়ের মৃত্যু

খালি নেই আইসিইউ; ছেলেকে বাঁচাতে মা ছাড়লেন বেড, ঘণ্টা খানিক পরেই মায়ের মৃত্যু

দেশজুড়ে দিন দিন ভয়াবহ রূপ ধারণ করছে প্রাণঘাতী ভাইরাস কোভিড ১৯। দেশের যে জেলাগুলোতে করোনার তাণ্ডব সবচেয়ে বেশি, সেগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো চট্টগ্রাম। চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত হয়ে বা করোনার উপসর্গ নিয়ে প্রতিদিন মারা যাচ্ছে অসংখ্য মানুষ।

কিন্তু এবার যা ঘটেছে, তা হৃদয়বিদারক। সম্প্রতি করোনা আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হোন দুই মা-ছেলে। তাদের শারীরিক অবস্থা এতই করুণ ছিল যে দু’জনেরই প্রয়োজন ছিল আইসিইউ চিকিৎসা। মায়ের শারীরিক অবস্থা আগে থেকে শোচনীয়। বৃদ্ধা মা আইসিইউতে-ই ছিলেন। এদিকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে ছেলেরও আইসিইউ’র সেবা প্রয়োজন।

কিন্তু হাসপাতালে আর আইসিইউ বেড খালি নেই। এমন পরিস্থিতিতেও বৃদ্ধা মা ছেলেকে বাঁচিয়ে রাখতে ছেড়ে দেন নিজের আইসিইউ বেড। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, আইসিইউ থেকে বের করার ঘন্টাখানেকের মধ্যেই শ্বাসকষ্টে মারা গেলেন সেই মা। মা’র মৃত্যুর খবরটি না পেলেও ছেলেটি বর্তমানে মায়ের ছেড়ে দেয়া সেই আইসিইউ বেডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ছেলের অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) বিকেলের দিকে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। বুধবার (২৮ জুলাই) রাতে হাসপাতালের আইসিইউ বেডের ইনচার্জ ডা. রাজদ্বীপ বিশ্বাস গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, সপ্তাহখানেক আগে নগরের দিদার মার্কেট সিঅ্যান্ডবি কলোনী এলাকার বাসিন্দা কানন প্রুভা পাল নামে ৬৭ বছর বয়সী এক নারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন। কয়েকদিন পর তার ছেলে শিমুল পালও (৪২) করোনায় আক্রান্ত হয়ে একই হাসপাতালে ভর্তি হন।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল সূত্র জানায়, কয়েকদিন আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একই পরিবারের মা-ও ছেলে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি হন। মঙ্গলবার চিকিৎসাধীন মায়ের অবস্থা সঙ্কটাপন্ন হলে হাসপাতালে তাৎক্ষনিক খালি থাকা একটি আইসিইউ বেডে তাকে স্থানান্তর করা হয়। এর মধ্যে বুধবার (২৮ এপ্রিল) সঙ্কটাপন্ন হয়ে উঠে ছেলের শারীরিক অবস্থাও। চিকিৎসকরা ছেলেকে আইসিইউতে স্থানান্তরের পরামর্শ দিলেও জেনারেল হাসপাতালসহ চট্টগ্রামের কোন হাসপাতালে আইসিইউ বেড খালি পাওয়া যায়নি। আইসিইউ বেডে থাকা মা তখন ছেলের জন্য নিজের আইসিইউ বেড ছেড়ে দেওয়ার কথা জানান চিকিৎসকদের। পরিবারের সদস্যদের সম্মতিতে মাকে সাধারণ বেডে নামিয়ে ছেলেকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। বুধবার দুপুরে সাধারণ বেডে আনার এক ঘন্টার মধ্যেই মারা যান মা।

সন্তানকে বাঁচাতে এমন আত্মত্যাগ মা ছাড়া আর কে করতে পারে! সন্তানের জন্য মা – বাবাই হচ্ছে প্রকৃত দীপশিখা।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিট প্রধান ডা. আব্দুর রব এই প্রতিবেদককে জানান, বুধবার (২৮ জুলাই) এই হাসপাতালে আরও একটি হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটেছে। করোনা আক্রান্ত হয়ে মাত্র ১২ ঘন্টার ব্যবধানে বাবা ও ছেলে মারা গেছেন এই হাসপাতালে।

সতর্কবার্তা, এখনো সময় আছে সবাই সাবধান হোন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হবেন না। মাক্স ব্যবহার করুন নিজেকে এবং দেশকে বাঁচান।

গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ  পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

https://www.facebook.com/BangaliTimesofficel

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Bangalitimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com