রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৫১ পূর্বাহ্ন

নির্মাণাধীন ভবনে স্কুলছাত্রীকে জবাই, জানা গেল খুনীর পরিচয়

নির্মাণাধীন ভবনে স্কুলছাত্রীকে জবাই, জানা গেল খুনীর পরিচয়

নির্মাণাধীন ভবনে স্কুলছাত্রীকে জবাই, জানা গেল খুনীর পরিচয়

প্রেমঘটিত কারণেই টাঙ্গাইলে স্কুলছাত্রী সুমাইয়া‌ আক্তার‌ (১৬) হ’ত্যাকাণ্ড ঘটেছে। প্রেমে ব্যর্থ হয়ে মনির হোসেন নিজেই তার প্রাক্তন প্রেমিক সুমাইয়াকে ঘারসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে হ’ত্যা করে। মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর আত্মহত্যার জন্য মনির নিজের শরীরের বিভিন্ন স্থানে তার ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে। বুধবার (২৭ অ‌ক্টোবর) হ’ত্যাকা‌ণ্ডের পর টাঙ্গাইল র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-১২ সদস্যরা ছায়া তদন্ত শুরু ক‌রে। প‌রে বি‌ভিন্ন ভি‌ডিও ফু‌টেজ সংগ্রহ ক‌রে র‌্যাব নি‌শ্চিত হয় গুরুতর আহত ম‌নির হো‌সেনই তার প্রাক্তন প্রেমিকা‌ সুমাইয়া‌ আক্তার‌কে হ’ত্যা ক‌রে‌ছে।

টাঙ্গাইল র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-১২ এর কোম্পানি কমান্ডার সহকারী পুলিশ সুপার মি. জন রানা হ’ত‌্যার বিষয়টি নিশ্চিত ক‌রে বলেন, এ ঘটনায় ঢাকায় চি‌কিৎসাধীন মনির হোসেনকে আটক করা হয়েছে। তার অবস্থাও আশঙ্কাজনক। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে র‌্যাবের প্রহরায় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

মনির কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা পৌর এলাকার মশাজান গ্রামের মেহের আলীর ছেলে। তিনি বাস চালকের সহকারি। আর নিহত ছুমাইয়া একই উপজেলার পালিমা গ্রামের ফেরদৌসুর রহমানের মেয়ে। পরিবারসহ এলেঙ্গা পৌরসভার রিসোর্ট এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতো। সে এলেঙ্গা রানী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। তিনি জানিয়েছেন, মনির হোসেনের সাথে ছুমাইয়ার দুইবছর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত দুই মাস আগে তাদের মধ্যে দুরত্ব সৃষ্টি হয়। এ কারণে মনির ছুমাইয়ার উপর ক্ষিপ্ত হয়। ছুমাইয়াকে হ’ত্যার জন্য মনির মঙ্গলবার রাতেই সিদ্ধান্ত নেয়।

নিহত সুমাইয়া আক্তার ও মনির

এ বিষয়ে তাদের (র‌্যাব) কাছে তথ্য রয়েছে। এছাড়া ঘটনাস্থলে হ’ত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত যে ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে সেটি মনির হোসেনের। মনির টিকটকের প্রতি আগ্রহ ছিল। মাঝে মধ্যে সে টিকটকে উদ্ধার হওয়া সেই ছুরিটি ব্যবহার করেছে। এছাড়া র‌্যাবের কাছে বেশ কয়েকটি ভিডিও ফুটেজ রয়েছে যা দেখে এই হ’ত্যাকাণ্ডের সাথে মনির নিজেই জড়িত বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, বুধবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে টাঙ্গাইলের কালিহাতী এলেঙ্গা-ভূঞাপুর-বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব আঞ্চলিক সড়কের পাশে এলেঙ্গা পৌরসভার এলেঙ্গা শামসুল হক কলেজের সামনে খোকন নামের এক ব্যক্তির নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের সিঁড়ি থেকে সুমাইয়ার মর‌দেহ উদ্ধার ক‌রে পু‌লিশ। নিহ‌তের পা‌শেই প‌ড়ে থাকা গুরুতর আহত ম‌নির হো‌সেন‌কে হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি করা হয়। এরপর উন্নত চি‌কিৎসার জন্য তা‌কে ঢাকায় পাঠা‌নো হয়। স্থানীয়রা জানান, সুমাইয়া সকালে বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী প্রাইম কোচিং সেন্টারে যাওয়ার জন্য বের হয়। এরপর তাকে শামসুল হক কলেজের সামনে নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ে ডেকে নিয়ে সিঁড়ির নিচে জবাইয়ের পর হ’ত্যা করা হয়।

গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ  পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

https://www.facebook.com/BangaliTimesofficel

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 Bangalitimes.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com